Saturday, July 20, 2024

নির্মম হত্যার শিকার বুলবুলের পরিবারের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিলো ডিবির মফিজুল

- Advertisement -

যশোরে নির্মম হত্যার শিকার ইজিবাইক চালক বুলবুল হত্যার রহস্য উদঘাটন নিজেই মাঠে নেমেছিলেন। আটক করেছিলেন হত্যাকারীদের সাতজনকে। একই সাথে হত্যার রহস্য উৎঘাটন করেছিলেন তিনি।
এদিকে, পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী বুলবুলকে হারিয়ে যখন বাকরুদ্ধ গোটা পরিবার। সংসারের ঘানি টানতে হিমশিম খাচ্ছেন স্ত্রী ঠিক সেসময় পরিবারের কর্মসংস্থানের জন্য তিনিই হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। বলছিলাম ডিবি পুলিশের  এসআই মফিজুল ইসলামের কথা। ইতিমধ্যে তিনি যশোরের আলোচিত বিভিন্ন হত্যা কান্ডের রহস্য উদঘাটন করে প্রশংসায় ভাসছেন।
মঙ্গলবার দুপুরে তার সংগঠন সামাজিক সচেতন সংস্থা (সাসাস) এর পক্ষ থেকে বুলবুলের স্ত্রী আখি আকতারের হাতে দ্ইুটি ছাগল ও নতুন পোষাক উপহার দিয়েছেন । স্ত্রীর সাথে ছিলেন আড়াই বছর বয়সের শিশু মেয়ে বিভা খাতুনও। আনুষ্ঠানিক ভাবে এ আয়োজনের প্রধান অতিথি ছিলেন ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ রুপন কুমার সরকার।

ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান জানান, এ সংগঠনের প্রধান পৃষ্টপোষক ডিবির এসআই মফিজুল ইসলাম। তিনি ২০১৪ সালে নিজ এলাকা ময়মনসিংহ থেকে সামাজিক এ সংগঠনটি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। কর্মের সুবাধে যে জেলাতেই যান সেখানেই সংগঠনটির কাজ অব্যাহত রাখেন তিনি। একই ভাবে যশোরেও এ সংগঠনকি প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে এসআই মফিজুর রহমান বলেন, সামান্য একটি ইজিবাইকের জন্য খুন হয়েছে বুলবুল। বুলবুলের সে ইজিবাইক আমরা উদ্ধার করেছি। এ ঘটনার সাথে জড়িতদেরকেও আটক করা হয়েছে। কিন্তু বুলবুলকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পারেনি। বুলবুলকে হারিয়ে পুরো পরিবার পথে বসেছে। অসহায় ওই পরিবারের কর্মসংস্থানের বিষয়টি মাথায় রেখেই তাদের এ আয়োজন। সাসসের সম্পর্কে তিনি বলেন, অসহায় মানুষের পাশে থাকতেই তার ভালো লাগে। আজীবন সেবা করে যাওয়ার প্রত্যয় নিয়ে ৯ বছর ধরে এ সংগঠনটি মানুষের সেবাই কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়া তাদের এ ধরণের নান্দনিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখার আশ্বাস দেন মি.মফিজুর।

এ বিষয়ে বুলবুলের স্ত্রী আখি আকতার বলেন, তার স্বামীর হত্যার পর থেকে পুলিশ তাকে যেভাবে সহযোগিতা করেছে তা কল্পনার বাইরে। দ্রুত আসামি আটক হওয়ায় তাদের মনে কিছুটা স্বস্থি  এসেছে। কিন্তু পেটে ভাত জুটছে না। ঠিক সেময় সাসস তাদের পাশে দাড়িয়েছে। এতে করে তারা নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন বলে জানান। বিশেষ করে এসআই মফিজুলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, গত ৮ জুলাই নির্মমভাবে বুলবুলকে হত্যা করে লাশ একটি পাটক্ষেতে ফেলে ইজিবাইক নিয়ে চম্পট দেয় দূর্বিত্তরা। তিনদিনপর ওই লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। লাশ উদ্ধারের ১২ঘন্টার মধ্যে হত্যাকারীদের আটক ও বুলবুলের ইজিবাইক উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ। যার নেতৃত্বে ছিলেন ডিবির এসআই মফিজুল ইসলাম।

উপহার বিতরণের সময়  সংগঠনের পক্ষ থেকে আরও উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা মিজানুর রহমান, আব্দুল্লাহ আল মামুন, যশোর জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান, সদস্য সুমন হোসেন ।

বিশেষ প্রতিনিধি

- Advertisement -

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত